ষাটের দশকের কার্টুনিস্ট তোফা আর নেই

ষাটের দশকের কার্টুনিস্ট তোফা আর নেই

৭৬ বছর বয়সে চলে যাওয়া তোফা কার্টুন আঁকার পাশাপাশি কবিতা ও ছড়াতেও অবদান রেখে গেছেন। লাইজুল ইসলাম জানান, ক’বছর আগে সড়ক দুর্ঘটনায় গুরুতর আহত হয়ে শেখ তোফাজ্জেল হোসেন শয্যাশায়ী হয়ে পড়েছিলেন। এরপর থেকে তিনি শারীরিক নানা জটিলতায় ভুগছিলেন। 

সোমবার বাদ জোহর জানাজা শেষে আমিনবাজার কবরস্থানে তাকে দাফন করা হবে।

১৯৬৮ সালের একুশে ফেব্রুয়ারি তার চাঁদা তোলা টাকায় ‘আর্তনাদ’ নামের সংকলনে শেখ তোফাজ্জেল ‘তোফাটুন’  নাম দিয়ে একটি কার্টুন প্রকাশ করেন। তার সেই কার্টুনে তিনি দেখিয়েছিলেন, একটি গরু ঘাস খাচ্ছে পূর্ব পাকিস্তানে, আর তার দুধ যাচ্ছে পশ্চিম পাকিস্তানে। পাকিস্তানি শোষণের শিকার বাংলার মানুষ লুফে নিয়েছিল কার্টুনটি। আইয়ুব খানের সামরিক শাসনের বিরুদ্ধে গণআন্দোলনের প্রেরণাদায়ী এই কার্টুনটিকে বাংলার স্বাধীনতার আন্দোলনের পটভূমি তৈরির ইতিহাসের অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ উপাদান হিসেবে দেখা হয়। তখনপাকিস্তান সরকার শেখ তোফাজ্জল হোসেনকে গ্রেপ্তার করে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারে পাঠিয়েছিল। বঙ্গবন্ধুও তখন সেখানে বন্দি ছিলেন। ১৯৪৪ সালে আসামের মারিয়ানি শহরে জন্ম নেওয়া শেখ তোফাজ্জেল পরে পরিবারের সঙ্গে চলে আসেন রাজবাড়ী জেলার পাংশা উপজেলার শালমারা গ্রামে। শেখ তোফাজ্জল হোসেন বেশকিছু বই লিখেছেন। ২০১২ সাল পর্যন্ত প্রায় সাড়ে চার হাজার কার্টুন এঁকেছেন, যা প্রকাশিত হয়েছে বিভিন্ন পত্রিকায়। তিনি ২০০৫ পর্যন্ত প্রায় ২৫ বছর একটানা বাংলাদেশ বেতারে বাংলা খবর পাঠ করেছেন।  ১৯৪৪ সালে ভারতের আসামের মারিয়ানি শহরে তিনি জন্মগ্রহণ করেন।

কার্টুনিস্টের যুবা বয়সের একটি ছবি